others

আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন Pdf Download & Review

বইঃ আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন
লেখকঃ আমিনুল ইসলাম ফারুক
প্রকাশকঃ গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স।
বইয়ের ধরণঃ মোটিভেশানাল
সংস্করণঃ চতুর্থ
মুদ্রণ মূল্যঃ ২৪০ টাকা
পৃষ্ঠাঃ ১৫০

একটা সময়ে একাডেমিক বইয়ের বাইরে আমার তেমন একটা বই পড়া হতো না। আউট বই পড়ার প্রতি আমার আকর্ষণ জন্মানোর পেছনে যে অল্প কয়েকটি বইয়ের ভূমিকা রয়েছে তার মধ্যে “আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন” বইটার ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। সাধারণত একবারে আমি কোনো বই শেষ করতে পারি না কারণ বিরক্তি এসে যায়। কিন্তু এই বইটি আমি বিনা বিরক্তিতে একবারে শেষ করতে পেরেছিলাম আমার অনার্স ফার্স্ট ইয়ারে, সেই ২০১৮ সালে। এর পর থেকেই মোটামুটি কিছু বই আমার নিয়মিত পড়া হয়। আর গার্ডিয়ানের প্রায় বই সংগ্রহ করে পড়ি।

বইয়ের নামের ভেতরই লুকিয়ে থাকে লেখার স্বার্থকতা, এ বইটিও তার ব্যতিক্রম নয় ৷ অত্যন্ত চমৎকার এই বইটি কিশোর, তরুণ ও যুবকদের উদ্দেশ্যে হৃদয়ভরা আকুতি নিয়ে লেখা হলেও বইটি সব শ্রেণীর পাঠকদের জন্য সুখপাঠ্য ৷ সফল জীবন গড়ার পাথেয় ৷ বইয়ের নাম ও প্রচ্ছদই বইটি ধরে দেখার প্রতি আকর্ষণ করে ৷ সূচিপত্রে চোখ বুলালে একটু না পড়ে রাখাই যাবে না ৷ আর ভেতরের কোনো শিরোনামে একটি লেখা পড়া শুরু করলে তা শেষ করার প্রতি একরকম দায়বদ্ধতা থেকে যাবে ৷

সাধারণত বড়দের জন্য বই লেখা সহজ ৷ কারণ, লেখকরা মূলত বড়ই হয়ে থাকেন৷ কিশোরদের জন্য লেখা কিন্তু তুলনামূলক কষ্টকর এবং কঠিন কাজ ৷ কারণ, লেখককে তখন তার কিশোর বয়সে ফিরে যেতে হয় ৷ সেই প্রাণোচ্ছল সময়গুলো মাথায় রেখেই ভেবেচিন্তে শব্দের পর শব্দ গেঁথে বই রচনা করতে হয় ৷ এটা সবাই পারেন না ৷ হয়তো লেখক নিজে তরুণ হওয়ায় এই বইটিতে তিনি সেটা অত্যন্ত সফলভাবে পেরেছেন বলেই মনে হয়৷ আর মোটিভেশানাল বইও যে গল্পচ্ছলে লেখা যায় তাও এই বই পড়ার মাধ্যমে জানা।

সহজ সরল এবং সাবলীল ভাষায় লিখিত বইটি উচ্চাকাঙ্খামূলক বই ৷ কিশোররা স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসে ৷ সে তার আশপাশের বড় বড় ব্যক্তিদের দেখে তাদের মতো হতে চায় ৷ তাদের আইডল ভাবে ৷ ওরা যদি বিশ্বের সব বড় বড় ব্যক্তিদের জীবনে সফল হওয়ার রহস্যগুলো জানতে পারে, তাহলে ওদের স্বপ্নশক্তি আরো বহুগুণে বৃদ্ধি পাবে ৷ সে রসদই এই বইতে দেয়া হয়েছে প্রতি পাতায় পাতায় ৷ সাথে বইটিতে সেসব বিখ্যাত মনীষীদের ছবিও যুক্ত করা হয়েছে যাতে তাদের সাথেও পরিচিত হয়ে নিতে পারে ৷

অসংখ্য তথ্যের সমাহার ঘটেছে বইটিতে৷ আমাদের কিশোররা কেউ কেউ নিজের মেধার ওপর হতাশা প্রকাশ করে ৷ ভাবে, আমার দ্বারা কিছু হবে না ৷ ৪০ নং পৃষ্ঠায় তাদের হতাশা দূর করণের অসামন্য এক তথ্য সংযোজিত হয়েছে ৷ একটি সুস্থ মস্তিষ্ক কয়েক হাজার কম্পিউটারের কাজ করতে পারে৷ আমাদের দেহের ভেতর মাত্র তিন পাউন্ড ওজনের মস্তিষ্কের গঠন সবচেয়ে জটিল ৷ এমনকি পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ আবিষ্কার সুপার কম্পিউটারের চেয়ে হাজার হাজার কোটি গুণ জটিল ৷

ডাক্তার ওয়াল্টার এর মতে, কেউ যদি বৈজ্ঞানিক প্রণালিতে মানুষের মস্তিষ্কের মতো ক্ষমতাধর বা শক্তিশালী অন্য কোনো বৈদ্যুতিক মস্তিষ্ক বানাতে চায় তাহলে এর জন্য খরচ হবে পনেরো শত কোটি, কোটি টাকারও বেশি ৷ সংখ্যাটি অংকে লিখলে দাঁড়ায় ১৫০০,০০০০০০০,০০০০০০০ টাকা ৷ যা দিয়ে বর্তমান প্রায় দশ হাজার কোটি কম্পিউটার কেনা সম্ভব ৷ তার মানে হলো তোমার মাথার কম্পিউটারটি দশ হাজার কম্পিউটারের চেয়েও শক্তিশালী ৷ কী হলো অমন হা হয়ে বসে আছো কেন ? বিশ্বাস হচ্ছে না? কিন্তু এটাই সত্যি ৷’

বইটি পড়ে বড় হওয়ার ইচ্ছেটা আরো বড় হবে ৷ জীবন যুদ্ধে সফল হবার প্রেরণা যোগাবে। মোটিভেশনাল বইতে সাধারণত গল্প থাকে না। কিন্তু এই বইটিতে অসাধারণ কিছু মানুষের জীবন সংগ্রামের গল্প দারুণভাবে উপস্থাপিত হয়েছে। বলা চলে গল্পের ছলে লেখার দরুণ বইটি পড়তে বিরক্তি আসবে না মোটেই ৷ আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্নই দেখতে ইচ্ছা হবে ৷ কিশোরদের কোনো বই উপহার দেয়ার ইচ্ছা থাকলে এ বইটি তালিকার প্রথম দিকেই রাখার কথা আমি বলব ৷

মূল কথা হলো কিশোর মনের ভাবনা, সংকট, চ্যালেঞ্জ, স্বপ্নকে বড়রা ধারণ করতে পারে না। স্বপ্নের ডালি নিয়ে তাদের সামনে কিছু উপস্থাপন করতে পারে
না। আমার দৃঢ় বিশ্বাস বইটি পড়ে প্রত্যেক কিশোর তার আগামীর পথ খুঁজে নিবে, নৈতিকতা সম্পন্ন জীবন গঠনে উদ্ভুদ্ধ হবে। স্বপ্নের পৃথিবীকে বাস্তবে রুপায়নের জন্য কর্মতৎপর হবে। আকাশ ছোঁয়ার চ্যালেঞ্জ নিতে হিম্মত পাবে।

#সুপারিশঃ
✍️বইটি বাবা-মা তার প্রিয় সন্তানকে উপহার দেয়ার জন্য।
✍️বইটি বড় ভাইবোন তার কিশোর ভাইবোনদের উপহার দেয়ার জন।
✍️ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কিশোর ছাত্রছাত্রীদের জন্য।

আমি একটু ভেবে দেখলাম,
বাংলা সাহিত্যকে বয়সভিত্তিক ক্যাটেগরিতে ভাগ করে নিলে একটা ভয়াবহ চিত্র চোখের সামনে ভেসে উঠবে। যতটুকুই বাংলা সাহিত্য তৈরি হয়েছে, তার ৯৫ শতাংশ বড়দের জন্য লিখা এবং অনৈসলামিক । দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাচ্চা ও কিশোরদের বই তৈরি করা হচ্ছে না। ইসলামি বই তো নেই বললেই চলে।
অথচ শৈশবের কুসুমকোমল মস্তিস্কে আপনি যা ইনপুট দিবেন, পরিণত বয়সে ঠিক সে আউটপুটই পাবেন। নবীজি (সাঃ) বলেছেন- “বাচ্চারা হলো কাঁদা মাটির মতো। তাদেরকে দিয়ে আপনি যা বানাতে চাইবেন সে তাই হবে।”

কিছুদিন আগে ঢাকার পাঠক সমাবেশে গিয়ে বাচ্চাদের দুচারটা বই হাতে নিয়ে আমি তো পুরোই অবাক। ইলাস্ট্রেশনের জৌলুসে ভরপুর একটি বইয়ে দেখলাম, কিশোরী রাজকুমারী তার রাজকুমারের জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনছে।
কী ভয়ংকর ব্যাপার? ১০ বছরের কিশোরীকে রাজকুমারের প্রতিক্ষার গল্প শুনিয়ে একটি মুসলিম দেশে কোন সভ্যতা নির্মাণের চেষ্টা করা হচ্ছে? এই গল্পের বই কিনে দিয়ে বাবা-মা তার সন্তানকে কীসের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন ?

আমার বিশ্বাস এই বইটি প্রত্যেক বাবা-মা তার সন্তানের হাতে তুলে দিতে পারবে, বড় ভাইবোন তার ছোটদের উপহার দিতে পারবে।
বইটি কিশোর মনে স্বপ্নের পসরা সাজাবে, নির্জীব প্রাণে সজীবতা
আনবে। আমাদের কিশোর-কিশোরীরা সত্যিই একদিন আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবে ইনশা আল্লাহ্‌।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!